শনিবার, ১৬ জানুয়ারী ২০২১, ১২:২২ অপরাহ্ন

রংপুর বিভাগে শ্রেষ্ঠ ডিজিটাল সেন্টার উদ্যোক্তা মো: সায়হান সৈকত

ধরলা টাইমস
  • প্রকাশের সময় : বৃহস্পতিবার, ১২ নভেম্বর, ২০২০
  • ১২৩ বার দেখা হয়েছে

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষ্যে ডিজিটাল সেন্টার কর্তৃক সারাদেশে আয়োজিত ‘মুজিব শতবর্ষ ই-সেবা ক্যাম্পেইন ২০২০’-এ রংপুর বিভাগের শ্রেষ্ঠ ইউনিয়ন ডিজিটাল সেন্টার (ইউডিসি) উদ্যোক্তা নির্বাচিত হয়েছেন লালমনিরহাট সদর উপজেলার কুলাঘাট ইউনিয়ন ডিজিটাল সেন্টারের উদ্যোক্তা মোঃ সায়হান সৈকত।

বুধবার (১১ নভেম্বর) ডিজিটাল সেন্টারের ১০ বছর পূর্তি উপলক্ষ্যে অনলাইনে আয়োজিত অনলাইন সম্মেলন এবং লোকসঙ্গীত (ফোক) কনসার্ট অনুষ্ঠানে বিভাগীয় শ্রেষ্ঠ উদ্যোক্তাদের নাম ঘোষনা করা হয় এবং এটুআই-এর যুগ্ম প্রকল্প পরিচালক ও মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের যুগ্মসচিব ড. দেওয়ান মুহাম্মদ হুমায়ূন কবীর এর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত অনলাইনে সম্মেলনে ‘মুজিব শতবর্ষ ই-সেবা ক্যাম্পেইন ২০২০’-এ অংশগ্রহণকারী সেরা উদ্যোক্তাদের সনদ প্রদান করা হয়।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে যুক্ত ছিলেন স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী মোঃ তাজুল ইসলাম, এমপি। এছাড়াও বিশেষ অতিথি হিসেবে যুক্ত ছিলেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক, এমপি, মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম, স্থানীয় সরকার বিভাগের সিনিয়র সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ এবং ইউএনডিপি বাংলাদেশের আবাসিক প্রতিনিধি সুদীপ্ত মুখার্জি। তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের সিনিয়র সচিব এন এম জিয়াউল আলম, পিএএ-এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য প্রদান করেন এসপায়ার টু ইনোভেট (এটুআই) প্রোগ্রামের প্রকল্প পরিচালক (অতিরিক্ত সচিব) ড. আব্দুল মান্নান, পিএএ।

অনুষ্ঠানে এটুআই-এর পলিসি অ্যাডভাইজর আনীর চৌধুরী ডিজিটাল সেন্টারের ১০ বছরের কার্যক্রম নিয়ে উপস্থাপনা প্রদান করেন। অনুষ্ঠানে বিভিন্ন জেলার জেলা প্রশাসকগণ, জনপ্রতিনিধি, উদ্যোক্তা ও সেবাগ্রহীতারা ডিজিটাল সেন্টার সম্পর্কে তাদের অভিমত ব্যক্ত করার মাধ্যমে গ্রামীণ জনজীবনে যে ইতিবাচক পরিবর্তন হয়েছে সে বিষয়গুলো তুলে ধরেন। এছাড়া উক্ত আয়োজনে আরো যুক্ত ছিলেন স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়, মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ, এটুআই-এর ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা এবং গণমাধ্যমকর্মীগণ।

উল্লেখ্য যে, জনগণের দোরগোড়ায় সেবা পৌঁছে দেয়ার লক্ষ্যে ২০১০ সালের ১১ নভেম্বর যাত্রা শুরু করে ডিজিটাল সেন্টার।

আপনার মতামত লিখুন :

এই পোস্টটি আপনার সামাজিক মিডিয়াতে শেয়ার করুন:

এ বিভাগের আরো পোস্ট
© All rights reserved © 2019 Dhorla Time
Design & Developed by Freelancer Zone
themesba-lates1749691102